বাংলাদেশ

ইতিহাসের সবচেয়ে বেশি ত্রাণ দেওয়া হচ্ছেঃ ড.হাছান মাহমুদ

অর নিউজ ডেস্ক : আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, করোনা সংকটে দেশের দিনমজুর, খেটে খাওয়া মানুষের যাতে কষ্ট না হয়, এজন্য বাংলাদেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে।

বুধবার সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ কথা বলেন তিনি।

ড. হাছান মাহমুদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বাংলাদেশের মানুষকে করোনাভাইরাস থেকে রক্ষার জন্য প্রথম থেকে বিভিন্ন ধরনের পদক্ষেপ নিয়েছেন। ইতিহাসের সবচাইতে বেশি ত্রাণ কার্যক্রম ঘোষণা দিয়ে বিতরণ অব্যাহত রেখেছেন। সরকারের ত্রাণ কার্যক্রমে দেশের এক তৃতীয়াংশের বেশি মানুষ এর আওতায় এসেছে।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের এক কোটি মানুষকে বিভিন্নভাবে সহযোগিতা করেছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের আলেম-ওলামার কথা চিন্তা করে কওমি মাদরাসায় সরকারি অনুদান দিয়েছেন। করোনার সময় লকডাউনের পরিস্থিতিতে আলেম-ওলামাদের যেনো সমস্যা না হয় এজন্য এ অনুদান দিয়েছেন।

তিনি আরো বলেন, শেখ হাসিনার সরকার মানুষের জীবন ও জীবিকা রক্ষার জন্য কাজ করে যাচ্ছেন। বাংলাদেশের কোটি কোটি মানুষের কথা চিন্তা করে লকটাউন শিথিল করে ছোট দোকানপাট সীমিত আকারে খোলার সুযোগ করে দিয়েছেন। একইসঙ্গে মানুষ যেন সামাজিক দূরত্ব বজায় রাখে সরকারি নির্দেশনা মানে এজন্য বারবার বলা হচ্ছে। সব মসজিদে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে নামাজ পড়তে পারে এজন্য লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। এই কাজগুলো বিএনপির সহ্য হচ্ছে না।

ভারতের কথা উল্লেখ করে তথ্যমন্ত্রী বলেন, যেখানে ভারতে প্রতিদিন প্রায় একশ’ জনের মতো মানুষ মারা যাচ্ছে। তারপরও ভারতের বিভিন্ন রাজ্যে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। ইউরোপে বিভিন্ন দেশে এখনো যেখানে শত শত মানুষ মারা যাচ্ছে, সেখানেও জীবিকার কথা চিন্তা করে লকডাউন শিথিল করা হয়েছে। আমাদের দেশেও কিছুটা শিথিল করা হয়েছে। তারপরও তারা সরকারে সমালোচনায় ব্যস্ত। সমালোচনা না করে আসুন আমরা জনগণের সুরক্ষার জন্য এক হয়ে কাজ করি।

Related Articles

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
Close